ঘাটাল নিউজ ডেস্ক, ১০ মে : গতকাল রাতে ভারতী ঘোষের গাড়ি আটক করে লক্ষাধিক টাকা উদ্ধার ঘিরে উত্তেজনা ছড়ায় পিংলায়। জানা গেছে, ঘাটাল কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষের গাড়ি আটকে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে তল্লাশি চলে এবং টাকা উদ্ধার ঘিরে উত্তেজনা ছড়ায় পিংলায়। অভিযোগ, বিজেপি প্রার্থী ও প্রাক্তন আইপিএস আধিকারিকের গাড়ি থেকে নিয়ম বহির্ভূত টাকা পাওয়া গিয়েছে। যদিও বিজেপি প্রার্থীরর নির্বাচনী এজেন্ট জানিয়েছেন, যে টাকা গাড়িতে ছিল, তার বৈধ কাগজপত্র রয়েছে।
জানা যায়, প্রচার সেরে যখন বৃহস্পতিবার রাতে বাড়ি ফিরছিলেন ভারতী ঘোষ তখনই ঘটনাচক্রে পিংলা থানার মুন্ডুমারিতে নাকা তল্লাশি চালাচ্ছিল পুলিশ। সেই তল্লাশিতে ভারতী ঘোষের গাড়িও অাটকে পড়ে এবং তল্লাশি করতে যান কর্তব্যরত পুলিশ আধিকারিকরা। ভারতী সহ গাড়িতে চারজন ছিলেন । বিজেপি প্রার্থীর পিছনে আরও তিনটি গাড়িতে ছিলেন বিজেপি কর্মীরা। প্রথম গাড়িতেই ছিলেন ভারতী। তাঁর গাড়িতে তল্লাশি করতে চাইলে ভারতী বাধা দেন বলে অভিযোগ। অভিযোগ মুন্ডুমারিতে কর্তব্যরত আধিকারিকদের চমক-ধমকে সেখান থেকে পালিয়ে যান বিজেপি প্রার্থী। তারপর মণ্ডলবারের কাছে ফের ভারতীর গাড়ি আটকায় পুলিশ। সেখান পৌঁছে যায় জেলা পুলিশের স্পেশ্যাল টিম। গাড়ি তল্লাশি করে লক্ষাধিক টাকা উদ্ধার করে পুলিশ। তল্লাশির ক্ষেত্রে ভারতী ঘোষ সহযোগিতা করেননি বলে অভিযোগ উঠেছে। জানা গিয়েছে, লক্ষাধিক টাকা ছিল গাড়িতে। ভোটের সময় ৫০ হাজারের বেশি টাকা নিয়ে কোনও প্রার্থী বা ব্যক্তি যাতায়াত করতে পারবেন না এরকমই রুল অাছে নির্বাচন কমিশনের। বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষের নির্বাচনী এজেন্ট জানিয়েছেন, গাড়িতে চার জন ছিলেন। পঞ্চাশ হাজার টাকা করে মোট ২ লক্ষ সঙ্গে নিয়ে যাওয়া যায়। সেক্ষেত্রে গাড়িতে ছিল ১ লক্ষ ১৩ হাজার টাকা।
স্থানীয় সূত্রে খবর, ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুলিশের সঙ্গে বিজেপি কর্মীদের ও ভারতী ঘোষের বেশ কিছুক্ষণ বচসা হয় । ভারতীর কাছ থেকে কত টাকা উদ্ধার হয়েছে, তা গভীর রাত পর্যন্ত জানায়নি পুলিশ। রাত দু’টো নাগাদ বিজেপি প্রার্থীকে পুলিশ ছেড়ে দিলে নতুন করে উত্তেজনা ছড়ায় পিংলা এলাকায়। স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব গভীর রাতেই রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়তে গোটা গ্রামেই উত্তেজনা দেখা দেয়। তৃণমূলের জেলা সভাপতি অজিত মাইতি বলেন, ভারতী ঘোষকে অবিলম্বে গ্রেপ্তার করতে হবে। যদিও পিংলার বিজেপির সাংগঠনিক সভাপতি অন্তরা ভট্টাচার্যের বক্তব্য, ভারতী ঘোষকে পরিকল্পনা করে ফাঁসানো হয়েছে। ভোটের দুদিন অাগে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে ভোটের ময়দানে ফায়দা লুটতে চাইছে তৃণমূল। বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষ বলেন, অামার টাকা নয় মিথ্যা ভাবে এসব করছে।