ঘাটাল নিউজ ওয়েব ডেস্ক, ১১ মে :
ভোটের কাউন্ট ডাউন শুরু হয়ে গেছে। প্রচার শেষ। তারমধ্যেই সরগরম হয়ে উঠল দাসপুরের ভোট যুদ্ধ। শুক্রবার রাতে দাসপুর থানার বৈকুন্ঠপুর নিম্বার্গ মঠের মধ্যে ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপির প্রার্থী ভারতী ঘোষের সাথে বহিরাগতদের গোপন বৈঠক চলছিল বলে অভিযোগ উঠে। তারপর অতর্কিত আক্রমণ চালায় কিছু মানুষ। অভিযোগের তীর তৃণমালের দিকে। জানা যাচ্ছে আজ রাত প্রায় ৯টা নাগাদ ভারতী ঘোষ প্রায় ৪০ জন বহিরাগতদের নিয়ে গোপন মিটিং করার সময় তৃণমূল কর্মীরা ভেতর ঢুকে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের উপর হামলা চালায়। এরপর উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। দুপক্ষের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হয় ইঁট ছোড়াছুড়ি শুরু হয়। বহিরাগতদের অনেকেই এর জেরে আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে দাসপুর হাসপাতালে পাঠানো হয়।
বিজেপির অভিযোগ বহিরাগত হামলাকারী আসলে তৃণমূলের কর্মী সমর্থক। এরপর দুশো জন তৃণমূলের কর্মী সমর্থক ওই মঠ ঘিরে রেখে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে। খবর পেয়ে দাসপুর থানার পুলিস ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। তৃণমূলের দাবি ভারতী ঘোষকে গ্রেপ্তার করতে হবে। পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘাটালের এস ডি পি ও অতিরিক্ত বাহিনী নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছান। লাঠি চার্জ করে বিক্ষোভ কারীদের হটিয়ে দেয় পুলিশ। তারপর ৩৮ জন বিজপির কর্মীকে অাটক করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয় । দাসপুর ১ ব্লকের রিটার্নিং অফিসার শংকর নস্কর জানান, দাসপুরের অস্তলে একটা সমস্যা হয়েছিল। গাড়িগুলি তল্লাশী চালিয়ে বিজেপি টুপি, গেঞ্জি, কাপড় পাওয়া যায়। তৃণমূলের ব্লক সভাপতি সুকুমার পাত্রর অভিযোগ ভোটের প্রচারের সময় পেরিয়ে গেলেও ভারতী ঘোষ বহিরাগতদের নিয়ে মিটিং করছিল এবং ভোটারদের কাপড় জামা বিলি করে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছিল। অভিযোগ দায়ের করেছি অাইনগত ব্যবস্থা নেবার জন্য। ভারতীর অভিযোগ তৃণমূলের বহিরাগতরা পরিকল্পনা করে অামাদের উপর হামলা চালায়, গাড়ি ভাঙচুর করে। বহিরাগতদের নিয়ে কোন মিটিং হয়নি ঘাটাল লোকসভার কর্মীরা দেখা করতে এসেছিল। ইছা করে অামাদের কর্মীদের উপর হামলা করে এখানকার লোকজন তারপর বিজেপি কর্মীদের ধরে নিয়ে যাওয়া হয় এবং অামাকে বসিয়ে রাখয় হয়। এ কেমন গনতন্ত্র।