স্পীড ব্রেকার দিদি রাজ্যের উন্নয়নে বাধা: মোদী

ঘাটাল নিউজ ডেস্ক: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে স্পীড ব্রেকার দিদি বলে সম্বোধন করেন মোদী। তিনি বলেন রাজ্যের উন্নয়নে বাধা দেওয়ার কাজ করেছেন দিদি। মোদী বলেন, “যে গতিতে দেশের অন্য রাজ্যে উন্নয়ন হয়েছে সেই গতিতে এখানে উন্নয়ন হয়নি। কারণ দিদি গরীবের উন্নয়ন আটকে রেখেছেন। তাই তিনি রাজ্যের উন্নয়নের স্পীড ব্রেকার।

মোদী বলেন,” স্পীড ব্রেকার দিদি থাকা সত্ত্বেও আপনাদের শুভেচ্ছা ছিল বলেই আমি এগিয়ে নিয়ে গেছি দেশকে। আর আপনাদের শুভেচ্ছা রয়েছে বলেই সবাইকে টক্কর দিতে আমি প্রস্তুত। ”

মোদী বলেন কেন্দ্রীয় সরকারের আয়ুষ্মান ভারতের মত গরীবদের জন্য স্বাস্থ্য প্রকল্প এরাজ্যে আটকে দিয়েছেন স্পীড ব্রেকার দিদি। রাজ্যের ৭০ হাজার কৃষকদের জন্য পিএম কিষান প্রকল্পের টাটা আটকে দিয়েছেন স্পীড ব্রেকার। দিদির সরকার গরীবদের লুঠ করেছে। চিটফান্ডের মাধ্যমে লুট করা হয়েছে এরাজ্যের মানুষকে। মোদী আরো বলেন বিল্ডার দের দুর্নীতি আটকাতে রেরা আইন চালু করা হলেও দিদি নিজের স্বার্থে তাদের এরাজ্যে লাগু করতে দেননি।

তিনি বলেন, যা বামেরা করত এইরাজ্যে সেই হাতিয়ার এখন দিদির হাতে। বরং সেই হাতিয়ারে আরো বেশি করে শান দিদির।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দিদির রাজনীতি পশ্চিমবঙ্গকে আরও গরীব করেছে। কিন্তু দিদির প্রতিযোগিতা এখন চৌকিদারের সঙ্গে। একাধিক কেন্দ্রীয় প্রকল্প আটকে দিলেও গ্যাস কানেকশন, বাড়ি ও শৌচাগার তৈরি ইলেকট্রিক পৌঁছানোর কাজ করেছে বিজেপি সরকার এখানে। তবে এই উন্নয়ন আরো এগোতে পারত যদি স্পীড ব্রেকার দিদি না থাকত। তাই স্পীড ব্রেকার সরে যাওয়ার অপেক্ষা করছি আমি।

যাতায়াত ব্যবস্থা উন্নয়ন কিংবা, উত্তরবঙ্গের মানুষের ফুড প্রসেসিং ইউনিট সহ স্থানীয় আদিবাসীদের উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দেন মোদী।

তিনি কটাক্ষের সুরে বলে যখন সন্ত্রাসবাদীদের ঘরে বালাকোটে ঢুকে তাদের মেরে আসে ভারতীয় সেনা। তখন ভারতবাসী গর্বিত হলেও বিরোধীরা প্রশ্ন তুলতে ব্যস্ত থাকেন। জঙ্গি মৃত্যুতে ইসলামাবাদের মত কষ্ট পান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মোদী বলেন ভারতীয় সেনাকে সিদ্ধান্ত নেওয়ার স্বাধীনতা দিয়েছে আমাদের সরকার। আর আফস্পা তুলে নিয়ে সেনাবাহিনীর নিরাপত্তা অনিশ্চিত করার এক কষছে বিরোধীরা।

একই সঙ্গে উত্তর-বঙ্গের মানুষের কাছে তিনি বিজেপি প্রার্থীদের বিপুল জনসমর্থনের অনুরোধ করে বলেন আপনারা বিজেপি প্রার্থীকে ভোট দিলে সেটা আসলে মোদীকে ভোট দেওয়া হবে। প্রতিশ্রুতি দেন ক্ষমতায় এলে তাদের চা-ওয়ালা উত্তর বঙ্গে চাশিল্পের উন্নয়ন করবে।

মোদী বলেন অনুপ্রবেশকারীদের ছাড়বে না বিজেপি সরকারের। কিন্তু শরনার্থীদের সাথে ইনসাফ করবে আপনাদের চৌকিদার। তিনি আরো বলেন ইচ্ছা কৃত এনআরসি নিয়ে এখানে গুজব ছড়ানো হচ্ছে। মোদী আশস্ত করেন এনআরসির জন্য কোনো গোর্খাকে ভয় পেতে হবে না।

প্রধানমন্ত্রী বলেন জগাই মাধাইয়ের ভয় দেখানোর আর চলবে না এরাজ্যে। নির্ভয়ে ভোট দিন। সবকা সাথ সবকা বিকাশের পথে এগোতে বিজেপির প্রার্থীদের ভোট দিন।

সভায় জনস্রোত দেখে তিনি বলেন দিদির নৌকা ডুবতে চলছে, দিদির ঘুম কেড়ে নেবে আজকের এই সভার জনস্রোত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here