24 এপ্রিল আজ ঘাটাল লোকসভার তৃণমূলের প্রার্থী দীপক অধিকারী সমর্থনে গৌরাতে এক সভাতে উপস্থিত হয়েছিলেন তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি। তিনি বলেন রাফায়েল কেলেঙ্কারীর দাগ লেগেছে এই সরকারকে ঠেকিয়ে রাখার ক্ষমতা নেই কারোও। তিনি আরো বলেন সত্তর বছরে ১১ বার বদল ঘটেছে সরকারের কিন্তু কেউ সেনাবাহিনীকে নিয়ে কোন দিন ব্যবহার করেনি। এখনো পর্যন্ত ভারতবর্ষে ৩০৩টি আসনের ভোট হয়ে গেছে এতেই কেন্দ্র সরকারের বিদায় ঘন্টা বেজে গেছে. ভারত বর্ষ সহ পৃথিবীতে যেখানে নির্বাচনের মাধ্যমে সরকার তৈরী হয় সেখানে ভ্রস্টাচার বা কেলেঙ্কারি মানুষের প্রতি অনীহা থাকে। আমরা দেখেছি ওয়াটার গেট কেলেঙ্কারিতে নিক্সনের সরকার চলে গেছিল, পানামা কেলেঙ্কারিতে পাকিস্তান সরকার চলে গেছিল এখনও প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী জেলবন্দি। ভারতবর্ষের প্রতিরক্ষামন্ত্রী দিল্লিতে দাঁড়িয়ে বলছেন বোফোর্স কেলেঙ্কারি হয়েছিল বলেই আগের সরকারকে চলে যেতে হয়েছিল। আর আমরা এখন বলছি রাফায়েল কেলেঙ্কারি দাগ এই সরকারের গায়ে লেগে গেছে তাই এই সরকারকে টিকিয়ে রাখার ক্ষমতা নেই কারো। এই সরকার পাঁচ বছরের খতিয়ান তুলে প্রচার করছে না সেনাবাহিনীর সেন্টিমেন্ট নিয়ে এরা প্রচার করছে। ১৫০ জন অবসরপ্রাপ্ত সেনাবাহিনীর প্রধান লিখিত ভাবে কমিশন ও রাষ্ট্রপতিকে জানিয়েছেন সেনাদের সেন্ট্রিমেন্ট ব্যবহার করে ভোট প্রার্থনা করছে ক্ষমতায় থাকা রাজনৈতিক দল এটা ঠিক নয়। যখন সময় শেষ হয়ে যায় তখন তাদের উত্তেজনা বাড়ে এবং রাজনৈতিকভাবে দুর্বল হয়। পাঁচ বছর আগে এই সরকার বলেছিল আমরা ৫ বছরের রিপোর্ট কার্ড জনগণের সামনে নিয়ে আসবো কিন্তু তা নিয়ে না আসে সেনাবাহিনীর সেন্টিমেন্ট নিয়ে তারা ভোট বৈতরণী পার হওয়ার চেষ্টা করছে এবং ২০১৬ সালে নোট বাতিলের সময় এই সরকার বলেছিল ৫০ দিন সময় দিন দেখবেন জঙ্গিহানা বন্ধ হয়ে যাবে জঙ্গিদের হাতে কালো টাকা যাবে না। দেশে কালো টাকা ধরা পড়বে কিন্তু কোনটাই হয়নি মানুষকে দিক শূন্য করেছে এই কেন্দ্র সরকার। অাজকের এই সভাতে উপস্থিত ছিলেন, মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র, জেলা সভাপতি অজিত মাইতি, বিধায়ক মমতা ভূঁইঞা, সুকুমার পাত্র, শ্যাম পাত্র, কৌশিক কুলভী, সুনীল ভৌমিক, তপন দত্ত, অাশীস হুতাইত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here