আজ ঘাটাল কলেজ মোড়(পাঁশকুড়া বাসস্ট্যান্ড) থেকে শুরু হয় পায়ে হেঁটে প্রচার।প্রচুর কর্মী ও বাজনাবাদ্যি সহকারে প্রচার শুরু হয়।কলেজ মোড় থেকে ঘাটালের কোন্নগরে যায় তারপর সেখান থেকে কলেজ মোড় হয়ে ঘাটাল বাজারে যায়।সেখানে ছোটছোট পথসভা করা হয়।তারপর ঘাটালের রথতলা হয়ে আলামগঞ্জে একটি পথসভা করেন।তবে রাস্তায় যেখানে মন্দির দেখেন সেখানে দাঁড়িয়ে মন্দিরে প্রনাম করেন।আলামগঞ্জ থেকে ৩ নং ওয়ার্ডের একটি বস্তিতে যান।সেখানের কালি মন্দিরে পূজো দেন এবং সেখানের সমস্ত মানুষের অভাব অভিযোগ শোনেন।ঘাটাল বাজারেও বহু মানুষের সাথে কথা বলেন সবাই অভাব অভিযোগ জানান। তিনি পথসভাতে বলেন ঘাটালে কোন উন্নয়ন হয়নি।গতবারের সাংসদ ঘাটাল মাস্টার প্ল্যানের কথা সংসদে বলননি।পৌরসভার দিকে আঙুল দেখিয়ে বলেন শুধু নীল সাদা রং করলেই উন্নয়ন হয় না,প্রযুক্তিগত উন্নয়ন কিছু নেই।রাস্তাঘাটের অবস্থাও খারাপ,চিকিৎসা ব্যবস্থা খারাপ।তিনি বলেন ভোটের সময় দেব(দীপক অধিকারী) কাজের সময় দেবী(ভারতী ঘোষ)। দেব-কে ভোট দিলে কোন উন্নয়নের কোনো কাজ হবে না।আমি নরেন্দ্র মোদীর ১১৬ টি প্রকল্প ঘাটালে নিয়ে আসবো।তৃণমূল চায় না সেই সব প্রকল্প ঘাটালে আসুক।আয়ুস্মান ভারত প্রকল্প আটকে দিয়েছে মমতা ব্যানার্জী।তিনি আরও বলেন পুলিশ এখন তার সাথে গল্প করতে চায়।তার বাড়িতে গিয়ে তার নাম,তার আধার নম্বর, প্যানকার্ড নম্বর, পাসপোর্ট নম্বর জানতে চায়।যাতে তিনি ভোট প্রচার করতে না পারেন।কিন্তু এভাবে আমাকে আটকানো সম্ভব নয়।তারপর ঘাটাল কেন্দ্রীয় বাসস্ট্যান্ডে প্রচার করে তিনি বেরিয়ে যান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here