প্রেমে ব্যার্থ হয়ে ভিডিও কল করে যুবকের অাত্মহত্যার চেষ্টা! ঘাটাল নিউজ ওয়েব ডেস্ক, ১ অক্টোবর : প্রেমিকার প্রত্যাখানে হোয়াটসঅ্যাপে লাইভ ভিডিও কল করে যুবকের অাত্মহত্যার চেষ্টা! এমনই ঘটনা ঘটতে চলেছিল ঘাটালে। তবে ঘাটাল থানার ওসি দেবাংশু ভৌমিক সহ অন্যান্য পুলিশ কর্মীদের চেষ্টায় জীবন ফিরে পেল যুবক। এখন ঘাটাল হাসপাতালে ভর্তি। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বাঁকুড়ার ইন্দাসে বাড়ি দেবপ্রসাদ অধিকারী, বয়স ২০। ফার্মাসিস্ট পাঠরত যুবক। দেবপ্রসাদ ছোট বেলা থেকেই পাশের গ্রামের একটি মেয়েকে ভালবাসে তাঁর নাম ঝিমলি( পরিবর্তিত)। ভালবাসা অনেকদিন ধরে চলতে থাকে। তা বাড়ির লোক জানত। কিছুদিন যাবৎ প্রেমে ইতি পড়ে, ফোন ধরছিলেন না প্রেমিকা ঝিমলি। প্রেম ভাঙছে দেখে অাপসেট হয়ে পড়ে ছেলেটি। জানাই লাইভ কল করে অাত্মহত্যা করবে। সেইমতো ২৯ সেপ্টেম্বর হোয়াটসঅ্যাপে লাইভ ভিডিও কল করে অাত্মহত্যা করার কথা বাড়িতে জানাই। বাড়ির পাশে ইন্দাস থানা হওয়াই সঙ্গে সঙ্গে থানাই গিয়ে পুরো বিষয়টি জানাই দেবুর পিতা প্রদীপ বাবু। ছেলেটি এও জানাই বিষ খেয়ে নিয়েছে সে এখন ঘাটাল হাসপাতালের অাশে পাশে অাছে। ইন্দাস থানা তৎক্ষনাৎ ঘাটাল থানার ওসিকে পুরো বিষয়টি জানান এবং ছেলেটির ফোন নম্বর দেয়। ঘাটাল থানার ওসি ফোন পাওয়া মাত্র গাড়ি নিয়ে হাসপাতালের অাশে পাশে ঘুরতে থাকে তারপর লোকেশন করে ছেলেটির কাছে পৌছায়। জানতে পারে নেলপালিশের সাথে কোল্ডড্রিংক্স মিশিয়ে খেয়ে অাত্মহত্যা করতে চেয়েছিল। কেন ইন্দাস থেকে ঘাটালে তাঁর উত্তরে প্রেমিক দেবপ্রসাদ অধিকারী জানান অামার জান হৃদয় প্রেমিক ঘাটাল হাসপাতালের নার্সিং কলেজে পড়ছে তাই এখানেই ? ঘাটাল থানার ওসি দেবাংশু ভৌমিক সময় নষ্ট না করে ছেলেটিকে হাসপাতালে ভর্তি করে বাড়িতে খবর দেন। ছেলেটি এখন সুস্থ। পুলিশের চেষ্টায় জীবন ফিরে পেল দেবপ্রসাদ। প্রদীপবাবুও টেনশন মুক্ত হলেন তাঁর ছেলের কান্ড কারখানায়। এতসব কান্ড ঘটেগেল তাঁরপরও কি হাসপাতালের বেডে শুয়ে থাকা প্রেমিককে ঝিমলি একবারও দেখতে অাসবে না! ঘাটাল থানার ওসি জানান, ইন্দাসের দেবপ্রসাদ অধিকারীকে হাসপাতাল থেকে ছাড়ার পর কাউন্সিলিং করে পাঠানো হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here