প্রধান কে হবে, তাই নিয়ে তৃনমুলের গোষ্ঠী কোন্দল ফের প্রকাশ্য এলো পশ্চিম মেদিনীপুরের চন্দ্রকোনা ২ ব্লকে। গতকাল রাতে তৃনমুলের এক গোষ্ঠী অপর গোষ্ঠীর লোককে তুলে নিয়ে গিয়ে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি চন্দ্রকোনা থানার ভগবন্তপুর ২ নং জিপির কোল্লা গ্রামের। এই ঘটনায় চন্দ্রকোনা থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। এই ঘটনায় গুরুতর আহত ব্যক্তি লালন খানকে প্রথমে চন্দ্রকোনা গ্রামীন হাসপাতাল পরে অবস্থার অবনতি হওয়াই মেদিনীপুর মেডিক্যালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। সূত্র মারফত জানা গেছে, ভগবন্তপুর ২ জিপির বিদায়ী প্রধান ইসমাইল খানকে প্রধান হিসাবে পুনরায় চাইছে কোল্লা গ্রামের অধিকাংশ পঞ্চায়েত সদস্য এবং কর্মী সমর্থক। আর ওই এলাকা থেকেই এবার তৃনমুলের প্রতীকে গ্রাম পঞ্চায়েতে প্রার্থী হয়ে জয়লাভ করেন সেখ জিয়াউর রহমান অন্যদিকে বিদায়ী প্রধান ইসমাইল খান গ্রাম পঞ্চায়েত থেকে মহেশপুর গ্রাম থেকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয় লাভ করেছেন। বোর্ড গঠনের আগেই দুই গোষ্ঠীর মধ্যে প্রধান পদ নিয়ে চলছে দড়ি টানাটানি । অভিযোগ গতকাল জিয়াউর রহমান বেশকয়েকজনকে নিয়ে ইসমাইল গোষ্ঠীর কাছের লোক লালন খানকে পাড়ার চা দোকান থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে ব্যাপক মারধর করা হয়। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার কোন ব্যবস্থা করা হয়নি। আক্রান্তের স্ত্রী খুশনবি বিবি খবর পেয়ে স্থানীয়দের সহযোগীতায় অাহত লালন খাঁনকে চন্দ্রকোনা হাসপাতালে ভর্তি করেন।এই ঘটনায় ৬ জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছেন স্ত্রী খুশন বিবি। বোর্ড গঠনের আগেই এরকম ঘটনা ঘটায় উত্তেজনা রয়েছে এলাকায়। শাসক দলের গোষ্ঠী কোন্দল না মেটালে প্রধান পদ নিয়ে বড় ধরনের ঘটনা ঘটার অাশঙ্কায় ভুগছে গ্রামবাসী থেকে রাজনৈতিক নেতারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here