দশম শ্রেনীর ১ ছাত্রীর সাহসিকতায় বন্ধ হলো ১ নাবালিকার বিয়ে।শুধু তাই নয় বিয়ের জন্য দেখাশোনা হচ্ছিলো তারও সেটাও আটকেছে ঐ ছাত্রী। ঘাটালের অজবনগরের ঘটনা।ঐ ছাত্রী থেকে খবর পেয়ে নাবালিকার বাড়ি যান ঘাটালের বিধায়ক শঙ্কর দোলই,পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি দিলীপ মাঝি ও ঘাটাল থানার পুলিশ।পায়েল রায় নামে ঐ ছাত্রী রথিপুর বরদা বানিপীঠ উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়ে। এবছর মাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছে।আর ১ নাবালিকা ঐ স্কুলের নবম শ্রেনীর ছাত্রী চন্দনা সিংহ রায়।আজ স্কুলে এসে পায়েল প্রধান শিক্ষককে জানায় তার বাড়ি থেকে তার বিয়ের দেখাশোনা করা হয়েছে এবং আজ বাড়ির সবাই তাদের বাড়িতে বিয়ের দিনক্ষণ ঠিক করতে গেছে।সে এখন বিয়ে করতে চায়না পড়াশোনা করতে চায়।তার গ্রামের নবম শ্রেনীর ছাত্রী চন্দনা সিং এর আজ বিয়ে ঠিক হয়েছে।প্রধান শিক্ষক আলোক ভট্টাচার্য তৎক্ষণাৎ প্রশাসনে খবর দেন।চন্দনার বিয়ে ঘাটাল থানার খড়ার ১০ নং ওয়ার্ডে গৌতম মুখার্জির ছেলে সাথে ঠিক করা হয়।পেশায় টিউশন মাস্টার।চন্দনার বিয়ে আটকানো হয়েছে।পায়েলর বিয়ে আটকানো হবে বলে জানান আলোক বাবু।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here