অশালীন অাচরন, ঘাটাল কলেজে বিক্ষোভে ডিএলএড পরীক্ষার্থীরা

আজ শিরোনামে আমার ঘাটাল

ঘাটালে বিক্ষোভে সামিল হল ডিএলএড এর পরীক্ষার্থীরা। ঘাটাল কলেজ অফ এডুকেশন নামে একটি কলেজ ডিএলএড এর তিনটি কলেজের প্রথম সেমিস্টারের পরীক্ষার সেন্টার হয়।। রত্নেশ্বরবাটি মহাত্মা রুরাল ডেভেলাফমেন্ট সোসাইটি, বরদা এস এস কে, সোনামুই সিদ্ধিবিনায়ক এই ৩টি কলেজের ছাত্র ছাত্রীদের পরীক্ষার সেন্টার হয় ঘাটাল কলেজ অফ এডুকেশনে। ছাত্র ছাত্রীদের অভিযোগ বিনা কারনে কলেজে পরীক্ষা দেওয়ার সময় বিভিন্ন ভাবে হেনস্থা করা হয় তাদের।মহিলাদের শাড়ীর অাঁচল পরীক্ষা করা হয় এবং গোপন স্থানে নোট থাকতে পারে তাঁরও ইঙ্গিত দেয় রুমে কর্তব্যরত শিক্ষকরা। ইলেকট্রিক চলে গেলেও জেনারেটর না চালানোর অভিযোগ উঠে। ছাত্ররা অসুস্থ হয়ে গেলেও কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি কলেজ কতৃপক্ষ। মহিলাদের অভিযোগ, তাদের সাদা ড্রেস পরে অাসতে বলে কলেজ কর্তৃপক্ষ। এতে সম্মানে অাঘাত লাগে বিবাহিত মহিলাদের। কলেজের ইনভিজিলেটরও পরীক্ষার হলে হেনস্থা করে। এর প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখায় ছাত্র ছাত্রীরা। দাবী কলেজের প্রিন্সিপাল ও ইনভিজিলেটরকে এবং স্টাফদের ক্ষমা চাইতে হবে ছাত্রছাত্রীদের সামনে। এরপর সমস্ত ঘটনার কথা উল্লেখ করে কলেজের প্রিন্সিপাল প্রবীর মাইতি নিজে ক্ষমা চান এবং স্টাফদের হয়েও ক্ষমা চেয়ে নেন। তিনি অারও বলেন পরের পরীক্ষাগুলোতে যাতে কোন অব্যবস্থা না হয় তার ব্যবস্থা করছেন। এর পাশাপাশি ইনভিজিলেটরও নিজেদের সমস্ত ত্রুটি স্বীকার করে ক্ষমা চেয়ে নেন তাদের কাছে। এরপরই বিক্ষোভ তুলে নেয় ছাত্রছাত্রীরা।তবে ছাত্রছাত্রীদের দাবি ঐ প্রিন্সিপাল যেন ৩টি কলেজে চিঠি দিয়ে ক্ষমা স্বীকার করেন।

Ghatal News