#ঘাটাল নিউজ ওয়েব ডেস্ক, পশ্চিম মেদিনীপুর,১৪ সেপ্টেম্বর : বিদ্যালয়ে আসার সময় অতিক্রম করলে ছাত্র-ছাত্রীদের মাশুল দিতে হবে বলে পরিষ্কার জানিয়ে দিল বেলদা গঙ্গাধার অ্যাক্যাডেমি কর্তৃপক্ষ।
ছাত্র ছাত্রীরা নির্দিষ্ট সময়ের পরে আসায় তাদের  গেটের বাইরেই আটকে দেওয়া হচ্ছে। যারা বিদ্যালয়ের প্রার্থনার আগে উপস্থিত হতে পারে নি তাদের ক্লাস করতে দেওয়াও হচ্ছে না। বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক জানিয়েছেন,প্রথমে ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ম-শৃঙ্খলা শিখতে হবে। নিয়ম ভেঙ্গে বিদ্যালয়ে দেরি করে আসা যাবেনা।একাদশ শ্রেণির ক্লাস শুরু হওয়ার প্রথম দিন থেকেই সময় মত বিদ্যালয়ে আসার কথা বলা হচ্ছিল।তবে ছাত্রছাত্রীরা  নির্ধারিত সময়ে  বিদ্যালয় আসছে না। তাই কড়া মনোভাব নিয়ে গেটে তালা লাগিয়ে  দেরি করে আসা ছাত্র ছাত্রীদের ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না।”ঘড়িতে সময় ১০.৫০ মিনিট হলেই  বিদ্যালয়ের গেটে তালা ঝুলিয়ে দেওয়া হচ্ছে  বলে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অলক ভট্টাচার্য  জানান। বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনির ছাত্র সৌভিক দাস জানায়, বেশ কিছুদিন আগেও”বিদ্যালয়ের প্রার্থনার পরেও ঢুকতে দেওয়া হতো।কিন্তু এখন সামান্য দেরি হলেই আর  ঢুকতে দেওয়া হয়নি। দেরিতে আসা ছাত্র-ছাত্রীদের দাবি নির্দিষ্ট সময়ের পরে আসলে প্রধান শিক্ষক আমাদের একটি ক্লাস সাসপেন্ড করে পরের ক্লাস থেকে ঢুকতে দেওয়ার অনুমতি দিক।”এদিকে দায়িত্বে থাকা প্রধান শিক্ষক অলক ভট্টাচার্যের স্পষ্ট বক্তব্য-“আমরা অনেকদিন ছাত্রছাত্রীদের ছেড়ে দিয়েছি।
এবার বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সাথে মিটিং করার পর আমরা সিদ্ধান্তে আসি যে প্রার্থনার পর কোনরূপ ছাত্রছাত্রীদের বিদ্যালয়ের ঢুকতে দেওয়া হবে না।দেরি করে এলে তাদের বাড়ি ফিরে যেতে হবে।”বিদ্যালয়ের দ্বাদশ শ্রেনির ছাত্র বিশ্বজিৎ সেন জানায়,”টিউশন শেষ করে বিদ্যালয়ে আসতে  কখনোসখনো একটু দেরি হয়। যাদের দু’একদিন  দেরি হয়। তাদের ক্লাস করতে দেওয়া হোক।” তবে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কড়া নির্দেশ মত নির্দেশমতো বিদ্যালয়ের গেট খোলা হচ্ছে না।
ছাত্রছাত্রীদের নিরুপায় হয়ে বাড়ি ফিরেেে যেতে হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here