#ঘাটাল নিউজ,পশ্চিম মেদিনীপুর, ৩০ সেপ্টেম্বর : রাস্তার ওপর তোরণ বিপদ বাড়াছে ঘাটালে। ঘাটাল মেচোগ্রাম রাস্তায় যততত্র পূজোর একমাস অাগেই তোরণ বানানোর হিড়িক পড়ে যায়। দূর্গাপূজোর কমিটি গুলি অতিরিক্ত টাকা বিঞ্জাপন হিসেবে তোরণে এ্যাড লাগিয়ে নেয়। ঘাটাল সেন্ট্রাল বাস স্ট্যান্ড থেকে কুশপাতা পর্যন্ত ৮ টি তোরণ বানানো হয়েছে এছাড়াও দাসপুর বকুলতলা বেলতলা সুলতাননগর পাঁচবেড়িয়া গৌরা খুকুড়দহ রাস্তার উপর বেঅাইনি ভাবে বেশীরভাগই নিয়ম না মেনে তৈরী করছে তোরণ। রাজনৈতিক নেতাদের হাত থাকাই প্রশাসন চুপ এমনটাই ধারনা ওয়াকিবহাল মহলের। হাতে গনা কয়েকটি পূজা কমিটি অনুমতি নেয় বাকীরা বেঅাইনি করে। নুমতি নিয়ে যারা করে তারাও নিয়ম না মেনেই তোরণ করে। যার ফলে দূর্ঘটনা ঘটে। অাজ সকালে ঘাটাল বিদ্যাসাগর সেতুর দিক থেকে ঘাটাল পাঁশকুড়া রোডে যাওয়ার সময় সেতুর ঢালে একটি ওভার লোড ট্রাক সাইড দিতে গিয়ে বড়সড় দূর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেল। যে কোন সময় এই তোরণের জন্য বিপদ ঘটতে পারে বলে স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবী। এর অাগেও ঘাটাল পাঁশকুড়া বাস স্ট্যান্ডে কয়েক বছর অাগে তোরণ ভেঙে পড়েছিল ওভার লোড ট্রাকের উপর। ঘাটাল বাসীর দাবী প্রশাসন কঠোর হলে তোরণ গুলি নিয়ম মেনে বানাত এবং দূর্ঘটনার হাত থেকে রেহাই পেত। PWD অাধিকারীক দেবব্রত সাহা জানান, কয়েকটি দূর্গা পূজা কমিটি অনুমোদন নিয়েছে। বাকী যারা অনুমোদন নেইনি তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পুলিশকে জানানো হয়েছে। তোরণ বানাতে হলে পিচ থেকে ২ মিটার দূরে তৈরী করতে হবে। তোরণগুলি এল প্যাটার্নে করতে হবে তা না হলে অাইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ঘাটালের তিনের পল্লী দূর্গাপূজো কমিটির কর্নধার কাশিনাথ দত্ত বলেন, নিয়ম মেনেই করা উচিত। অনুমতি নিয়েই করছি তবে জায়গা কম থাকায় কোথায় কম বেশি হছে। বিঞ্জাপনের টাকার জন্য তোরণ করা হয়।
বেঅাইনি বা অাইন না মেনে তৈরী তোরণগুলির জন্য অাদৌও কি প্রশাসন ব্যবস্থা নিতে পারবে না দূর্ঘটনা ঘটলে হুস ফিরবে এটার উত্তরের খোঁজে ঘাটাল বাসী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here