ঘাটালে বিধায়কের ক্ষমতা খর্ব করা শুরু হল

পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার ঘাটাল মহকুমার ঘাটাল এআরডি ব্যাংক যা এলডি ব্যঙ্ক নামে পরিচিত। এই ব্যাংকের সভাপতি ছিলেন ঘাটালের বিধায়ক শঙ্কর দোলুই। গত ফেব্রুয়ারি মাসে বোর্ডের মেয়াদ শেষ হওয়ার পর মুখ্য কার্যনির্বাহী আধিকারিক দ্বারা পরিচালিত হচ্ছিল ব্যাংকটি। কিছুদিন আগেই রাজ্য সমবায় মন্ত্রক থেকে মনোনীত একটি নতুন কমিটি ব্যাংকে আসে, দেখা যায় বিধায়ক বা বিধায়ক ঘনিষ্ঠ কোন সদস্যদের নাম নেই সেই প্যানেল। সাংসদ দীপক অধিকারী ঘনিষ্ঠ সদস্যদের নাম রয়েছে প্যানেলে। কয়েকমাস আগে থেকেই অর্থাৎ লকডাউন শুরু থেকে রান্না করা খাবার দেওয়াকে কেন্দ্র করে বিধায়ক ও সাংসদের মধ্যে ঠান্ডা লড়াই চলছে ঘাটালে। এইজন্য ব্যাঙ্কের মনোনীত সদস্যদের মধ্যে বিধায়ক এবং বিধায়কের মনোনীত সদস্যদের নাম রাখা হয়নি বলে রাজনৈতিক মহলের ধারনা। আজ এই ব্যাংকের নতুন কমিটির শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয় এবং ব্যাংকের নতুন চেয়ারম্যান ঘোষনা করা হয় তমলুক ঘাটাল সেন্ট্রাল কো অপারেটিভ ব্যঙ্কের সম্পাদক কৌশিক কুলভীর নাম। চেয়ারম্যান হওয়ার পর তিনি বলেন আগে যেভাবে ব্যাঙ্ক পরিচালিত হয়েছে সেভাবে পরিচালিত হবে সবাইকে নিয়ে যাতে আরো ভালো করে উন্নয়ন করতে পারা যায় সেই দিকেই নজর দেওয়া হবে বলে তিনি জানান।এই বিষয়ে জানার জন্য বিধায়কের সাথে ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা যায়নি।অন্যদিকে শোনা যাচ্ছে অারও যে সমস্ত পরিচালন সমিতির মাথায় বসে অাছেন সেই জায়গাতেও বিধায়কের ক্ষমতা খর্ব করার চেষ্টা শুরু হয়েছে।