দুদিন সিআইডির ম্যারাথন জেরার মুখে কাবু হয়ে পড়া পশ্চিম মেদিনীপুরের প্রাক্তন পুলিশ সুপার ভারতী ঘোষ তৃতীয়দিনের জেরা এড়িয়ে গেলেন | সোনা প্রতারনা , বালি চুরি , ফল ব্যবসায়ীর টাকা লুট সহ একাধিক মামলায় অভিযুক্ত ভারতী ঘোষকে আগাম নোটিশ দিয়ে ২০ ও ২২ এপ্রিল দুদিন জেরা করে সিআইডির আধিকারিকরা | সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশেই চলছে এই জেরা | তিনি লোকসভা ভোটে ঘাটাল কেন্দ্রে বিজেপির প্রার্থী হয়েছেন | রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিহিংসার রাজনীতির অভিযোগ তুলে তাঁর ভোট প্রচারে বাধা দিতেই এই জেরা বলে ভারতী দেবী অভিযোগ তুললেও বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দিয়েছে সিআইডি জেরায় সহযোগিতা করতে হবে তাঁকে |
শনিবার পুনরায় তাঁকে জেরা করা হবে বলে সিআইডির পক্ষ থেকে শুক্রবার তাঁর দাসপুরের বেলতলায় কলমিজোড় গ্রামের অস্থায়ী বাড়িতে নোটিশ সেঁটে যায় দাসপুর থানার পুলিশ | পরপর দুবার জেরা করার পরও লুকানো সোনার হাদিস পেতে এবং জমির সন্ধানে পুনরায় তাঁকে তারা জেরা করবেন বলে জানান |

সেইমতো তাঁর অস্থায়ী ঠিকানায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সিআইডির ডেপুটি সুপার শঙ্কর ভট্টাচার্য নোটিশ পাঠান | সেই নোটিশে লেখা ছিল শনিবার সিআইডির দল তাঁকে পুনরায় জেরা করতে আসবে | সেইমতো এদিন সকাল ১০ টা নাগাদ সিআইডির স্পেশাল সুরিন্টেন্ডেন্ট ইন্দ্রনারায়ণ চক্রবর্তী ও এক ডেপুটি সুপারের ( মহিলা আইপিএস ) নেতৃত্বে ১৬ জনের দল দাসপুরের বাড়িতে আসেন | এসে দেখেন তিনি বাড়িতে নেই | বাড়িতে থাকা কেয়ারটেকার , দলীয় কর্মী ও নিরাপত্তা রক্ষীরা জানান , উনি প্রচারের কাজে সকাল ১০ টা নাগাদ পাঁশকুড়া বেরিয়ে গেছেন | প্রচার সেরে কখন ফিরবেন তা তাঁরা জানেন না | সিআইডির আধিকারিকরা তাঁর ফেরার অপেক্ষায় বিকেল ৩ টা পর্যন্ত অপেক্ষা করেন | তিনি ফেরেননি এমনকি তাঁদের ফোনও ধরেননি | তাঁর নির্বাচনী এজেন্ট অয়ন দণ্ডপাটকে ফোন করলে তিনি জানান , উনি প্রচারের কাজে ব্যস্ত আছেন | এরপর সিআইডি আধিকারিকরা আর একটি নোটিস সেঁটে চলে যায় |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here