লোকসভা ভোটের আগে সিপিআই(এম) এর কর্মী সভা দাসপুরে হয়,উপস্থিত ছিলেন সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র।

লোকসভা ভোটের দিনক্ষণ ঠিক হয়েগেছে।
আগামী ১২ মে ঘাটাল লোকসভার ভোট। তাই আজ ঘাটাল লোকসভার অন্তর্গত দাসপুর বিধানসভা এলাকায় একটি কর্মী সভার আয়োজন করা হয়। সভাটি অনুষ্ঠিত হয় দাসপুর ১ ব্লকের তাজপুরে। উক্ত সভায় প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিপি অাই এম এর রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র।এছাড়া ছিলেন জেলা সম্পাদক তরুন রায়,ঘাটাল লোকসভার আহ্বায়ক অশোক সাঁতরা,দাসপুরের প্রাক্তন বিধায়ক সুনীল অধিকারী ও অন্যান্য কার্যকর্তা এবং প্রায় ১ হাজরের বেশি কর্মী।বক্তৃতার মধ্যে সূর্যকান্ত মিশ্র অনেক কথায় বলেন।তিনি বলেন আপনাদের মুখস্থলিতে যেন থাকে বিজেপি হাটাও দেশ বাঁচাও তৃণমূল হাটাও বাংলা বাচাও।সারা দেশে আমাদের প্রধান লড়াই বিজেপির বিরুদ্ধে এবং বিজেপির বিরুদ্ধে যতটা ভোট একত্রিত করা যায় তার জন্য আমরা চেষ্টা করছি।সারা দেশে ৩১ শতাংশ ভোট পেয়ে ৫৬ ইঞ্চি ছাতি নিয়ে ঘুরে বেরাচ্ছে বাকি অংশটা যদি এক হত তাহলে এই ৫৬ কবে ৩৬ হয়ে যেত।পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল ও বিজেপির বিরুদ্ধে যত ভোট একত্রিত করতে হবে।গত লোকসভায় সিপিএম যেখানে জিতেছে সেই আসন ছেড়ে দিতে হবে আর কংগ্রেস যেখানে জিতেছে আমরা ছেড়ে দেব তাহলে আসন সমঝোতা হবে নাহলে নয়।বাকি জায়গায় দেখতে হবে কি করলে কি হবে।খবরের কাগজ বা টিভি আমাদের কথা লেখেনা, আমরা তো দেখলাম আমাদের ব্রীগেড সমাবেশ শেষ হতে না হতেই রাজীব কুমার কে নিয়ে নাটক শুরু হয়ে গেল।আরও বলেন তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা নিয়ে বলেন কোথা থেকে কিছু ফ্লিমস্টারদের নিয়ে প্রার্থী ঘোষনা করে দিলেন যারা মাঠ ময়দান কিছুই জানেনা,ভাল অভিনয় করে হয়তো।এই ভোটের সময় তাদের সমস্ত শুটিং বাদ করে তারা এখানে ঘোরাঘুরি করবেন আর ভোটে জিতলেই আর দেখা যাবে না।নাম না করে বলেন গত ৫ বছরে পার্লামেন্ট ১ প্রশ্ন করতেও দেখা যায়নি এদের।নাম না করে দেবের নামেও বলেন বন্যা নিয়ন্ত্রণ কি হবে এসব কথাও বলেননি।মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে বলেন ৪২ জন প্রার্থী তালিকা কিন্তু ১ জনই প্রার্থী আমাদের মুখ্যমন্ত্রী তার মুখ দেখেই সবাইকে ভোট দিতে হবে।আপনার থেকে সিনেমার হিরো হিরোইনদের দেখতে ভালো। আগে তিনি ছবি আঁকতেন কবিতা লিখতেন এখন লেখেন না কেন?এদের যে হরিশ চ্যাটার্জী স্ট্রিটে ৫ টা বহুতল বাড়ি তৈরী হয়েছে তা চপের দোকান করে হয়েছে? পুলওয়ামা হামলা নিয়েও অনেক কথা বলেন এবং জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল নিয়ে বলেন।দলীয় কর্মীদের বলেন সমস্ত স্তরের জনে জনে সমস্ত মানুষের কাছে গিয়ে এইসব কথা তুলে ধরুন তাহলেই ভোটে জেতা যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here